প্রযুক্তি উদ্যোক্তা ইলন মাস্ক ছবি- উইকিপিডিয়া



ইলন মাস্ক একজন প্রযুক্তিবিদ, তিনি আমার কাছে সবসময় একজন রহস্যময় মানুষ। নিজেকে ছাড়িয়ে নিয়ে যান অজানা এক পথে,  করে ফেলেন অসাধ্য কাজ গুলো। মানুষটাকে অনেক বেশি ফলো করা শুরু করি ২০২২ সাল থেকে। তার কিছু ইন্টারেস্টিং বিষয় আমাকে অনেক ভাবায়। যেমন ধরেন, টেসলা ট্রাক যখন সবার সামনে আনে তখন সে সেটার গ্লাস চেক করেন এবং সবার সামনে সেটা ফেঙ্গে যায়। এবং সবাই সেই নিউজটা ফলোও করে প্রচার করে। আপনি বা আমি এমন কাজ করার চিন্তাও হয়তো করতে পারবো না। পরে তিনি আবার দেখিয়েছেন যে টেসলা এর গ্লাসটা শক্ত জিনিস দিয়ে ভাঙ্গা সম্ভব না। কিন্তু এটা ছিল তার মার্কেটিং স্ট্রাটেজি,যেটা সারা দুনিয়ায় তার নতুন প্রজেক্টিকে পরিচয় করে দেয় বিনামূল্যে। আমার কাছে মনে হয় টেসলা হয়তো এমন একমাত্র কোম্পানী যারা মার্কেটিং করতে খরচই করে না। এখন আমি বলতে চাই, একজন ইলন মাস্ক কেমনভাবে হতে পারে তিনটা বিষয়কে আমি তুলে ধরতে চাই, যেটা আমার কাছে মনে হয় ইলন মাস্ককে সবার থেকে আলাদা করে ফেলেছে।


বড় কিছু ভাবতে শেখাঃ ইলন মাস্ককে সবার থেকে আলাদা করে ফেলেছে বড় কিছু ভাবতে পারে সে,যেটা হয়তো সবাই পারে না। ইলন মাস্ক যখন স্পেসএক্স তৈরি করলো তখন পর্যন্ত কেউ ছিল না যে বেসরকারী ভাবে স্পেস নিয়ে কাজ করবে। তার এই প্রতিষ্ঠান এমন কিছু করে ফেললো যেটা পৃথিবীকে তাক লাগিয়ে দিল। তারা প্রথম সফলভাবে রকেট কে পুনরায় ব্যবহারযোগ্য করে তুললো।যেটা তার বড় কিছু ভাবতে শেখার অনন্য ক্ষমতা। আমাদের মধ্য একজন ইলন মাস্ক তৈরি হতে হলে আমাদের এমন বড় কিছু ভাবার ক্ষমতা অর্জন করা শিখতে হবে। আপনি দেখুন, ভারতে শিক্ষার্থীরা অনেক কিছু ভাবতে শিখে গেছে যেটা ভারতকে অনেক এগিয়ে নিয়ে যাবে। আমাদের সবসময় অন্যকে অনুসারণ করতে থাকি কিন্তু আমাদের ভাবা উচিত অন্যকে অনুসারণ মানে নিজেকে অন্যের কাছে সপে দেওয়া। পৃথিবীতে আপনার জায়গা কেউ করে দেবে না আপনাকেই করে নিতে হবে। একজন ইলন মাস্ক হওয়ার ক্ষেত্রে বড় কিছু ভাবার সক্ষমতা অর্জন করা অতীব জরুরী।

ঝুকি নেওয়ার ক্ষমতা অর্জনঃ  ইলন মাস্ক এর জীবন নিয়ে পড়াশোনার সময় যেটা বুঝেছি সেটা দেখে মনে হয়েছে, তিনি অনেক বেশি ঝুকি নেওয়ার ক্ষমতা অর্জন করে ফেলেছেন। সেটা তাকে আজ সবার সামনে আইডল করে তুলেছে। যেমন ধরুন, যখন তিনি টেসলা কিনলেন , তারপর ২০০৮ সালের দিকে তিনি দেওলিয়া হওয়ার পথেছিলেন। এমন সময় হয়তো আমরা চিন্তা করতাম, আমরা ভাগ্যের দোষ দিয়ে ছেড়ে দিতাম, কিন্তু সে শক্ত হাতে সামলিয়েছেন। আমাদের জীবনে ঝুকি নেওয়ার ক্ষমতা অর্জন করা উচিত। 

জীবনকে উপভোগ করুনঃ   আমাদের সবার ধারণা হলো বেশি কাজ করা মানে সে বোকা, কেউ যদি ১০ ঘন্টা কাজ করে , তাকে মনে করা হয় সে জীবনে কি করলো । এখানে আসলে আমার মত হলো, আমি একজন মুসলিম হিসাবে  আমার আল্লাহ প্রদত্ত যত আদেশ আছে সেটা মানার পর আমাকে জীবনকে উপভোগ করা।  ১০০+ ঘন্টা কাজ করার মাধ্যমে ইলন মাস্ক জীবনকে উপভোগ করে, আমাদের এইখানে একটাই সমস্যা, আমরা নিজেদের নিজের কাজকে ভালোবাসি না শুধু চিন্তা করি যে, এইকাজ এ টাকা নাই, আমার চাপ, যেটা আমাদের জীবনকে উপভোগ করতে বাধা প্রদান করে। ইলন মাস্ক এর মধ্য এই বিষয়টা প্রগাড় যে তিনি নিজের কাজের মাধ্যমে জীবনকে উপভোগ করে।


আমি এইখানে বলতে চাইনি, সবাইকে ইলন মাস্ক হতে হবে এখানে নিজের কাজে একেকজন ইলন মাস্ক হওয়াটা জরুরী এটাকে বুঝাতে চেয়েছ। আমাদের একজন ইলন মাক্স তৈরি হতে আরো অনেক বিষয় লাগতে পারে তবে । নিজের ইচ্ছাশক্তিই শুধু পারে একজন ইলন মাস্ক তৈরি করতে।